নজরে ২১

ইন্দপুরে মন্ডল সভাপতি বদলের প্রতিবাদে বিজেপির জেলা সভাপতির কূশপুতুল পুড়িয়ে বিক্ষোভ বিজেপি কর্মী সমর্থকদের।

বিধানসভা ভোটের আগে খোদ বিজেপির জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্রের কূশপুতুল পুড়িয়ে বিক্ষোভ দেখালেন দলীয় কর্মী,সমর্থকেরা। জেলার ইন্দপুরে এই বিক্ষোভের ঘটনায় আলোড়ন পড়ে যায় জেলার রাজনৈতিক মহলেও। ইন্দপুরে বিজেপির মন্ডল সভাপতিকে পদ থেকে সরিয়ে নুতন মন্ডল সভাপতি ঘোষণার পরই এই বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন স্থানীয় বিজেপি কর্মী,সমর্থকরা। যার জেরে চরম বিড়াম্বনায় জেলা বিজেপি।

ইন্দপুরে মন্ডল সভাপতি বদলের প্রতিবাদে বিজেপির জেলা সভাপতির কূশপুতুল পুড়িয়ে বিক্ষোভ বিজেপি  কর্মী সমর্থকদের।
X

বাঁকুড়া২৪X৭প্রতিবেদন : এ যেন উলটো পুরাণ! দলের জেলা সভাপতির কূশপুতুল পুড়িয়ে বিক্ষোভ দেখালেন দলেরই কর্মী সমর্থকরা!আর এই ঘটনায় বিধানসভা ভোটের আগে চরম বিড়ম্বনায় বাঁকুড়া জেলা বিজেপি। এদিন,জেলার ইন্দপুর ব্লকের বাংলা জয়েন্ট মোড়ে বিজেপির জেলা,সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্রের কূশপুতুল পুড়িয়ে বিক্ষোভে সামিল হন স্থানীয় বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। হাতে বিজেপির দলীয় পতাকা নিয়ে জেলা সভাপতির অপসারনের দাবীতে স্লোগান তুলে সরব হন তারা।তাদের অভিযোগ,অন্যায় ভাবে ইন্দপুরের ১ নাম্বার মন্ডলের সভাপতি বিবেকানন্দ সাহানাকে পদ থেকে সরিয়েছেন জেলা সভাপতি। তাই,এই ঘটনার প্রতিবাদে আজ খোদ দলের জেলা সভাপতির কূশপুতুল পোড়ালেন তারা।

প্রসঙ্গত,বিজেপির জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্রের সাথে সম্প্রতি ছাতনার ৩ নাম্বার মন্ডলের সভাপতির মোবাইলের কথোপকথন সোস্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হতেই বিবেকানন্দ বাবু বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের নাম তুলে যে মন্তব্য করেন, তা প্রকাশ্যে আসে।আর এর জেরে বিস্তর জল ঘোলা শুরু হয়ে যায় জেলা বিজেপিতে। দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ছাতনা ৩ নাম্বার মন্ডলের সভাপতি সিদ্ধেশ্বর কুন্ডুকে পদ থেকে হটিয়ে পরমেশ্বর মন্ডল কে নুতন সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব দেন জেলা সভাপতি, একই ভাবে ইন্দপুর ১ নাম্বার মন্ডল সভাপতি বিবেকানন্দ সাহানাকে সরিয়ে নুতন সভাপতি হিসেবে তারকনাথ গোস্বামীর নাম ঘোষণা করা হয়। এর পরই ইন্দপুরে বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে এসে পড়ে। দলের স্থানীয় কর্মী, সমর্থকদের একটা বড়ো অংশ জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিতে তার কূশপুতুল পর্যন্ত পোড়ায়। আর এর সাথে,সাথে জেলা বিজেপির অফিসিয়াল গোষ্ঠী যে জেলার সাধারণ কর্মী,সমর্থকদের ওপর লাগাম টানতে অপারগ তাও পরিস্কার হয়ে যায় এদিন। ফলে, স্বাভাবিক ভাবেই এতে অনেক খানি এডভান্টেজ মিলল বিরোধী তথা তৃণমূল শিবিরে। এখন দেখার,এই বিক্ষোভের আগুন নেভাতে দলের রাজ্য নেতৃত্ব ময়দানে নামে কিনা? সেদিকেই তাকিয়ে জেলা বিজেপির নেতা থেকে কর্মী, সমর্থকরাও।

দেখুন 🎦 ভিডিও। 👇


Next Story