নজরে ২১

ফের বেলাগাম সৌমিত্র খাঁ,মুখ্যমন্ত্রীকে রক্তপিপাসু মহিলা বলে কটাক্ষ! তোপ পুলিশ অফিসারদের বিরুদ্ধেও।

আজ রাজ্য জুড়ে আইন শৃঙ্খলার অবনতির প্রতিবাদে বিজেপির থানা ঘেরাও কর্মসুচীতে যোগ দিতে এসে ফের বেলাগাম বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে রক্ত পিপাসু মহিলা বলে কটাক্ষ করলেন তিনি। পাশাপাশি ফের রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবী তুলে সরব হলেন এই বিজেপি সাংসদ।

ফের বেলাগাম সৌমিত্র খাঁ,মুখ্যমন্ত্রীকে রক্তপিপাসু মহিলা বলে কটাক্ষ! তোপ পুলিশ অফিসারদের বিরুদ্ধেও।
X

বাঁকুড়া২৪X৭প্রতিবেদন : আজ বিষ্ণুপুর থানা ঘেরাও কর্মসুচীতে যোগ দিতে এসে আরও একবার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বেলাগাম ভাষায় আক্রমণ শানালেন সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। এদিন বিষ্ণুপুর থানা ঘেরাও এর পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে রক্ত পিপাষু মহিলা বলে কটাক্ষ করেন।তিনি বলেন নবান্নে রক্ত পিপাষু এক মহিলা বসে আছেন। তার প্রতিদিন রক্ত না হলে চলে না। এমনকি প্রতিদিন একজনের হত্যার খবর না পেলে তিনি ভালো থাকেন না।

এই প্রসঙ্গে সৌমিত্র বাবু পৌরানিক কাহিনি উল্লেখ করে বলেন, এই সব কাহিনিতে যেমন শোনা যায় দানবকে শান্ত করতে নাকি মনুষ্যের প্রাণ যেত , সেই অবস্থা হয়েছে বাংলার। আইনের শাসন শিকেয় উঠেছে।কারণ,কিছু পুলিশ অফিসার পুরোপুরি তৃণমূল হয়ে গেছেন। আর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাদের লাখ,লাখ টাকা আয়ের সুযোগ করে দিয়ে দলদাসে পরিনত করেছেন। এই অবস্থায় রাজ্যে সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণ ভোট করতে হলে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি ছাড়া উপায় নেই। তাই ফের তিনি রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের পক্ষে জোর সওয়াল করলেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ।

আজ তার নেতৃত্বে বিষ্ণুপুর থানা ঘেরাও কর্মসুচীতে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা মিছিল করে থানায় এসে বিক্ষোভ কর্মসুচিতে যোগ দেন।


এদিন, সারা রাজ্যের সাথে বাঁকুড়া জেলার প্রতিটি থানাতেও এই ঘেরাও কর্মসুচী পালন করে বিজেপি।তবে বিষ্ণুপুর থানায় সৌমিত্র খাঁ নিজে যোগ দেওয়ায় এই থানায় পুলিশি তৎপরতা জেলার অন্যান্য থানার তুলনায় বেশী ছিল। তবে সারা জেলা জুড়ে এই কর্মসুচীকে ঘিরে কোথাও অপ্রীতিকর কোন ঘটনার খবর নেই বলে জেলা পুলিশ সুত্রে খবর।

দেখুন 🎦 ভিডিও। 👇


Next Story