সুব্রত মুখোপাধ্যায় কে হারাতে কোন ইস্যু কে হাতিয়ার হিসেবে বাছলেন আমিয় পাত্র? তার মুখেই শুনে নিন।#দেখুন🎦

সুব্রত মুখোপাধ্যায় কে হারাতে কোন ইস্যু  কে হাতিয়ার হিসেবে বাছলেন আমিয় পাত্র? তার মুখেই শুনে নিন।#দেখুন🎦
X

#বাঁকুড়া২৪X৭প্রতিবেদন : গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যে দেড় কোটি মানুষ ভোট দিতে পারেন নি! শাসক দল সন্ত্রাস চালিয়ে বিরোধী দলের প্রার্থীদের মনোনয়ন দাখিল করতেই দেয়নি! এবার লোকসভা ভোটে, এটাকেই বড়ো ইস্যু করে খোদ পঞ্চায়েত মন্ত্রীর পরাজয় নিশ্চিত করার কৌশল নিয়েছেন বাঁকুড়া কেন্দ্রের বাম প্রার্থী আমিয় পাত্র। আজ প্রার্থী ঘোষনার পর বাঁকুড়া২৪X৭ কে এক সাক্ষাৎ কারে এই কৌশলের কথা জানান আমিয় বাবু।তিনি বলেন, জেলায় পঞ্চায়েত দপ্তরের মন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রী দুজনেই জেলার দুই কেন্দ্রে প্রার্থী হয়েছেন।তাদের মনে রাখা উচিত এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে বাঁকুড়ার বহু বিরোধী প্রার্থীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে দেওয়া হয়নি।গোটা রাজ্যে দেড় কোটি মানুষ ভোটধিকার প্রয়োগ করতে পারেননিযে দপ্তরের ভোট ছিল তার ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় আর প্রতিমন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা। আজ তারাই বাঁকুড়া ও বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী। তারা প্রচারে গিয়ে আগে জনগনের কাছে জবাব দিন কেন মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছিল।এই উত্তর জেলার মানুষ তাদের মুখ থেকে শুনতে চায়।পাশাপাশি, নারদা ইস্যু তুলে সুব্রত বাবুকে ভোট যুদ্ধে বিদ্ধ করার সুযোগও কাজে লাগাতে চাইছে বামেরা।আমিয় বাবু এই প্রসঙ্গে বলেন, ২০০৯ এর সুব্রত মুখোপাধ্যায় আনেক বেশী ক্লিন ছিলেন।তখন তার ওপর সারদা,নারদার কালো দাগের আঁচড়,ছিল না।কিন্তু এবার নারদা ইস্যু সুব্রত বাবুর হেভী ওয়েট অনেক খানি কমিয়ে দিয়েছে।তাই, লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি বলেও দাবী করেন জেলার এই পোড়,খাওয়া বাম নেতা। জনপ্রিয় এই নেতার নাম ঘোষনা হতেই জেলা জুড়ে কমরেডরা দেওয়াল লিখনে নেমে পড়েন। শহরে অমিয় পাত্র কে সাথে নিয়ে নির্বাচনী প্রচারের প্রথম পদযাত্রার আয়োজন করা হয়।

#দেখুন 🎦ভিডিও 👇[embed] href="https://www.bankura24x7.com/amiya-patras-reaction-after-declared-as-a-left-front-candidate/sketch-1550686146849-3/" rel="attachment wp-att-4040">

Next Story