ভারী বর্ষণের জের,শহরে জলে ডুবল বস্তি,ভাঙ্গল সাঁকো,সামাল দিতে নেমে পড়ল দমকল ও বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর।

ভারী বর্ষণের জের,শহরে জলে ডুবল বস্তি,ভাঙ্গল সাঁকো,সামাল দিতে নেমে পড়ল দমকল ও বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর।
X

বাঁকুড়া২৪X৭প্রতিবেদন : গতরাতের ভারী বর্ষণে বাঁকুড়া পুরশহরের বিভিন্ন একালা জলমগ্ন হয়ে পড়ায় জেরবার হতে হল সেখানকার বাসিন্দাদের। বাঁকুড়া পুরশহরের ১৮ নাম্বার ওয়ার্ডের রেল বস্তির কালিন্দি পাড়ায় বেশকিছু ঘরে জল ঢুকে গিয়ে বিপত্তি ঘটে। বাড়ীর মেঝে জলে থৈ,থৈ হওয়ার ঘটনাও নজরে পড়ে। এদিন সকাল থেকেই পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় তৃণমূল নেতা সুদীপ চক্রবর্তী। পাশাপাশি,খবর পেয়ে ১৮ নাম্বার ওয়ার্ডে এসে পৌঁছান বাঁকুড়ার বিধায়ক নিলাদ্রি শেখর দানাও। তিনিও শহরের জলমগ্ন এলাকাগুলি পরিদর্শন করেন। জেলার বিভিন্ন এলাকা জলমগ্ন হওয়ার জেরে চরম ভোগান্তি পড়েন সেখানকার বাসিন্দারা।

অন্যদিকে, শহরের ১৬ নাম্বার ওয়ার্ডের কানকাটা এলাকায় পুরসভার নিকাশি খালের ওপর একটি সাঁকো জলের তোড়ে ভেঙে যাওয়ায় ঘটে বিপত্তি। জল ছড়িয়ে পড়ায় বেশ কিছু এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়ে। এই নিকাশি খালের মাধ্যমে শহরের ১৩,১৫,১৬,২২ ও ২৪ নাম্বার এই ৫টি ওয়ার্ডের নর্দমার জল এই খালের মাধ্যমে প্রভাহিত হয়।


কিন্তু গতরাতের ভারী বর্ষণে এই সাঁকোর তলায় নিকাশী নালায় প্রচুর কচুরিপানা আটকে গিয়ে জল আটকে দেয়। আর সেই জলের তোড়ে ভেঙ্গে যায় সাঁকোর কিছু অংশ। পাশাপাশি, খালের জল ছড়িয়ে পড়ায় আসপাশের এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছটে যান বাঁকুড়া পুরসভার প্রশাসক অলকা সেন মজুমদার, পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের সদস্য দিলীপ আগরওয়াল,গৌতম দাস,

এছাড়া পরিস্থিতি সামাল দিতে ছুটে যান বাঁকুড়া সদরের মহকুমা শাসকও। ঘটনাস্থলে আসেন প্রক্তন পৌরপ্রধান মহাপ্রসাদ সেনগুপ্তও। খবর দেওয়া হয় বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরকেও। পাশাপাশি,স্থানীয় বাসিন্দারা নিজেদের উদ্যোগে কচুরিপানা সাফ করে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা চালান। আবহাওয়ার উন্নতি হলে এই সাঁকো সারাইয়ের কাজ এবং এই সমস্যার স্থায়ী সমাধানের ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে বাঁকুড়া পুরসভার পক্ষ থেকে আশ্বাস মিলেছে।

শহরের বিভিন্ন নিচু এলাকায় এবং নিকাশী নালা উপচে পড়ায় জলমগ্ন হওয়ার খবর মিলেছে। এই সব এলাকায় দ্রুত দমকল বাহিনী ও বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর পৌঁছে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার জন্য জোর কদমে নেমে পড়েন। গতরাতের বৃষ্টির জেরে শহরের এই জলডুবি ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন সেখানকার বাসিন্দারা। তাদের আশঙ্কা ফের আজ রাতেও ভারী বৃষ্টি নামলে দুর্ভোগ চরমে উঠবে।

👁️দেখুন 🎦 ভিডিও। 👇



Next Story