মনসার পোড়ামাটির চালির চল কমছে ! জঙ্গলমহলেও মনসা পুজিত হচ্ছেন কুমোরটুলির আদলে তৈরি প্রতিমায়।

জেলার পোড়ামাটির শিল্পীদের মনসা পুজোকে কেন্দ্র করে রুজি রোজগার ভালোই হত।ইদানীং মনসার চালির পরিবর্তে প্রতিমা পুজোর দিকে ঝোঁক বাড়ায় এই পোড়া মাটির শিল্পীদের রুজি,রুটিতে ভাটা পড়বে এমন আশঙ্কা যেমন বাড়ছে, তেমনি লোক উৎসবকে কেন্দ্র করে লোক শিল্পীদের আর্থ- সামাজিক যে কাঠামো গড়ে উঠেছিল তার বাঁধন আলগাও হতে শুরু করেছে।

মনসার পোড়ামাটির চালির  চল কমছে ! জঙ্গলমহলেও মনসা পুজিত হচ্ছেন কুমোরটুলির আদলে তৈরি প্রতিমায়।
X

বাঁকুড়া২৪X৭প্রতিবেদন : এক সময় জেলার পাঁচমুড়ার পোড়ামাটির শিল্পের সৃষ্টিই হয়েছিল লোক দেবীর মানতের হাতি ঘোড়া,মনসা'র চালি,মনসা'র ঘট,বারি ঘট,বা তুষু'র চালি তৈরীর মধ্যদিয়ে। শুধু পাঁচমুড়াই নয় বাংলার অনেক জায়গাতেই এই একই ঘরানার আদলে পোড়া মাটির হাতি,ঘোড়া,দেব- দেবীর চালি তৈরীর প্রচলনও ছড়িয়ে পড়ে। বাঁকুড়া শহরের রামপুরে আজও মনসা দেবী পুজিত হন পোড়ামাটির অভিনব চালিতে। এই চালি প্রায় ৪৫০ বছরেরও প্রাচীন বলে কথিত আছে। এমন প্রমাণ মাপের মনসার চালি রাঢ়বাংলা তথা সারা দেশে কোথাও নেই। এই মনসার চালির গঠন শৈলীতেও রয়েছে অভিনবত্ব।এই চালির একে বারে ওপরে আছেন দেব সেনাপতি কার্তিক,তার নীচে আছে রাধা-কৃষ্ণের বিগ্রহ। আর একেবারে মাঝখানে বিরাজ করছেন দেবী মনসা।

এবং দেবী মনসার দুই পাশে পরিবৃতা হয়ে রয়েছেন দুই সখী। আর একেবারে নীচে আছে বিশালাকার নৌকা। এই মনসার চালির অভিনব গঠনশৈলী ও ঐতিহ্যের কারণে বারে,বারে এই মন্দিরে ছুটে আসেন দেশ ও বিদেশেএ লোক গবেষকরা। সারা রাঢ়বাংলা জুড়েই এই মনসার চালিতেই মনসার আবাহনের চল দীর্ঘদিনের।


কোথাও লাল পোড়া মাটির চালি, তো কোথাও পোড়ামাটির কালো চালির চল আছে। তবে দিন,দিন এই মনসার চালিতে পুজোয় ভাটা পড়ছে জেলায়। চালির বদলে, মাটির প্রতিমা তৈরির প্রচলন বাড়ছে। বাঁকুড়া শহরের পাশাপাশি, জঙ্গলমহলেও মনসার প্রতিমা পুজোর রেওয়াজ শুরু হয়েছে বেশ কয়েক বছর ধরে। সারেঙ্গা বাজারে মনসার প্রতিমা তৈরি হয়েছে একেবারে কুমোরটুলির আদলে।

তবে পুরোহিতের দাবী, এখানে প্রতিমার চল শুরু হলেও পুজো পরম্পরা মেনে নিষ্ঠার সাথে হয়ে আসছে। জেলার পোড়ামাটির শিল্পীদের মনসা পুজোকে কেন্দ্র করে রুজি রোজগার ভালোই হত।ইদানীং মনসার চালির পরিবর্তে প্রতিমা পুজোর দিকে ঝোঁক বাড়ায় এই পোড়া মাটির শিল্পীদের রুজি,রুটিতে ভাটা পড়বে এমন আশঙ্কা যেমন বাড়ছে, তেমনি লোক উৎসবকে কেন্দ্র করে লোক শিল্পীদের আর্থ- সামাজিক যে কাঠামো গড়ে উঠেছিল তার বাঁধন আলগাও হতে শুরু করেছে তা বলাই বাহুল্য।

👁️দেখুন 🎦 ভিডিও। 👇



Next Story