শহরে যুবকের গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য ! এই খুনের ঘটনায় মাদক চক্র যোগের অভিযোগ,তদন্তে পুলিশ।

শহরের সতীঘাট লাগোয়া কুসুম সিনেমা হলের কাছে একটি নির্মীয়মান মন্দিরের পাশ থেকে উদ্ধার হল এক যুবকের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ। মৃতদেহের কপালে গুলির ক্ষতের চিহ্ণ রয়েছে। পাশাপাশি নির্মীয়মান মন্দিরের মেঝেতে রক্তের দাগ মিলেছে। তা থেকে মনে করা হচ্ছে, নির্মীয়মান মন্দিরের ছাদে খুন করে দুষ্কৃতিরা মৃতদেহ টেনে,হিঁচড়ে নীচে ফেলে দিয়ে চম্পট দেয়।

শহরে যুবকের গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য ! এই খুনের ঘটনায় মাদক চক্র যোগের অভিযোগ,তদন্তে পুলিশ।
X

বাঁকুড়া২৪X৭প্রতিবেদন : শহরের সতীঘাট লাগোয়া কুসুম সিনেমা হলের কাছে একটি নির্মীয়মান মন্দিরের পাশ থেকে উদ্ধার হল এক যুবকের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ। মৃতদেহের কপালে গুলির ক্ষতের চিহ্ণ রয়েছে। পাশাপাশি নির্মীয়মান মন্দিরের মেঝেতে রক্তের দাগ মিলেছে। তা থেকে মনে করা হচ্ছে নির্মীয়মান মন্দিরের ছাদে খুন করে দুষ্কৃতিরা মৃতদেহ টেনে,হিঁচড়ে মৃতদেহ নীচে ফেলে দিয়ে চম্পট দেয়। আজ সকালে স্থানীয় বাদিন্দারা নদীতে প্রাতঃকৃত্য সারার পথে মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন।


পুলিশ এসে ঘটনার তদন্ত শুরু করে এবং মৃত যুবক সোমনাথ দে (৩৫)এর দাদা মৃতদেহ সনাক্ত করেন। তার অভিযোগ ভাইকে খুন করা হয়েছে এবং এই খুনের সাথে মাদক যোগ রয়েছে। শহরের পোদ্দারপাড়া এলাকার বাদিন্দা সোমনাথ গত রাত থেকে নিখোঁজ ছিলেন

তার পরই তার গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার হয় আজ। দোষীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবী তুলেছে সোমনাথের পরিবার।

এদিকে, কুসুম সিনেমা সংলগ্ন এলাকা নেশার আখড়ায় পরিণত হয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয় বাদিন্দাদের। তারাও মনে করছেন এই খুনের ঘটনায় মাদক চক্রের যোগ রয়েছে।


কয়েক বছর আগেও মাদক সিন্ডিকেট বিবাদের জেরে গন্ধেশ্বরী নদী চরে খুনের ঘটনা ঘটেছিল। এবার ফের ঘটল খুনের ঘটনা। এক্ষেত্রেও মাদক চক্রের পাণ্ডাদের যুক্ত থাকার অভিযোগ উঠছে। সেই সুত্র ধরে খুনের ঘটনার কিনারা করতে তদন্তেও নেমেছে জেলা পুকিশ। পুলিশের দাবী শীঘ্রই এই খুনের কিনারা হয়ে যাবে। ধরা পড়বে খুনীরাও।

#দেখুন 🎦 ভিডিও। 👇




Next Story