গভীর রাতে কয়েকটি দোকানের তালা ভেঙ্গে চুরি,পুলিশের সড়ক টহলদারির সময় হাতে নাতে বমাল সহ ধরা পড়ল চোর।

গভীর রাতে কয়েকটি  দোকানের তালা ভেঙ্গে চুরি,পুলিশের সড়ক টহলদারির সময় হাতে নাতে বমাল সহ ধরা পড়ল চোর।
X

বাঁকুড়া২৪X৭প্রতিবেদন : শহরের লক্ষ্যাতড়া শ্মশানের কাছে গন্ধেশ্বরী নদীর বড়ো ব্রীজে লাগোয়া কয়েকটি দোকানের তালা ভেঙ্গে জিনিসপত্র চুরি করে চম্পট দেওয়ার ছক কষেছিল এক দুষ্কৃতি। মাঝরাতে নির্জন পরিবেশে দিব্যি কয়েকটি দোকানের তালা ভেঙ্গে দোকানের ভেতরে থাকা জিনিস পত্র চুরি করে থলেতে সব ভরে এলাকা ছাড়ার চেষ্টা করছিল কিন্তু শেষ রক্ষা হল না।


তার সব ছক বানচাল করল বাঁকুড়া সদর থানার রোড মোবাইল টিম। বৃহস্পতিবার মাঝরাতে পুলিশের টহলদারির সময় বমাল সমেত ধরা পড়ে যায় এই চোরটি। পুলিশের রোড মোবাইল টিমের নজরে পড়ে যায় সে। এতরাতে তাকে দেখেই সন্দেহ হয়।গাড়ী থেকে নেমেই পুলিশের আধিকারিকের কাছে চুরির ঘটনা স্পষ্ট হয়ে যায়। একেবারে বমাল সমেত ধরা পড়ে এই গুণধর!

সাথে,সাথে তাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয় বাঁকুড়া থানায়। পুলিশের জেরায় চুরির ঘটনা কবুলও করে সে। এরপর শুক্রবার ধৃতকে বাঁকুড়া আদালতে তোলা হয়। পুলিশের এই তৎপরতায় খুশী স্থানীয় ব্যবসায়ীরাও। এদিকে, এই চুরির ঘটনার জেরে শহরের অন্যত্রও দোকানদাররা দোকানের তালা বেশী শক্তিশালী করার পাশাপাশি। দোকান লাগোয়া এলাকায় সিসি টিভি লাগিয়ে এই ধরণের চুরির ঘটনা ঠেকাতে তৎপর হচ্ছেন বলে জানা গেছে। অন্যদিকে,পুলিশ সুত্রে খবর ধৃত চোরটি ওন্দার পুনিশোল এলাকার বাসিন্দা। চুরির জন্যই সে শহরে এই লক্ষ্যাতড়া লাগোয়া নির্জন এলাকার দোকানগুলিকে বেছে নেয়। এবং চুরির আগে ঘটনাস্থলে এসে রেইকিও করে সে।

পুরোপুরি নিজের পরিকল্পনা মাফিক চুরির কাজ সেরেও ফেলে। কিন্তু পুলিশের হাতে ধরা পড়ে যাওয়ায় তার সব পরিকল্পনা কার্যত মাঠে মারা যায়।

👁️দেখুন 🎦ভিডিও। 👇



Next Story