বাঁকুড়া খ্রীষ্টান কলেজের জুলজির ল্যাবে ঢুকে পড়ল ময়াল সাপ !

বাঁকুড়া খ্রীষ্টান কলেজের জুলজির ল্যাবে ঢুকে পড়ল ময়াল সাপ !
X

বাঁকুড়া২৪X৭প্রতিবেদন : এবার ময়ালের হানা বাঁকুড়া খ্রীষ্টান কলেজের জুলজির ল্যাবে! জল জ্যান্ত ফুট আটের ময়াল দেখে ল্যাবের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে আতঙ্ক! ছাত্র,ছাত্রীরা অনেকেই ভয়ে চিৎকার জুড়ে দেয়, কেও,কেও ছুটও দেয়! চিৎকার শুনে কলেজের কর্নীরা ছুটে আসেন দোতলার জুলজি ল্যাবে। শুরু হয়ে যায় সাপটিকে ধরার তোড়জোড়। পাল্টা ভয় পেয়ে সাপটি ঢুকে পড়ে টেবিলের ভেতর। এক সাহসী কলেজ কমী হাতে করে সাপের লেজ ধরে টেনে বের করেন। তার পর বস্তা বন্দি করা হয় ময়ালটিকে।[playlist type="video" ids="788"]

কলেজে ময়াল ঢুকে পড়ল কী ভাবে ? তা নিয়ে কলেজ কতৃপক্ষের কোন বক্তব্য জানা যায়নি।

জুলজির ল্যাবে পরীক্ষার জন্য সাপটি অন্য কোথা থেকে আনা হয়েছিল? না, কলেজ সংলগ্ন ঝোপ -ঝাড় থেকে সাপটি ওপরের তলায় ল্যাবে রাখা ব্যাঙ,ইঁদুরের গন্ধে শিকার ধরার লোভে ঢুকে পড়ে? তানিয়ে এখনও কলেজ কতৃপক্ষের কোন অফিসিয়াল বক্তব্য মেলেনি।

জানা গেছে, শনিবার, দুপুরে এই ঘটনা ঘটে। আজ রবিবার কলেজ বন্ধ। তাই সোমবার কলেজ কতৃপক্ষের বক্তব্য জানানো যাবে।

তবে, সাপটির শেষ পরিনতি কী হল? তা নিয়েও নানা কথা শোনা যাচ্ছে ছাত্রদের সুত্রে। একটি সুত্র জানিয়েছে, সাপুড়েরা নাকি সাপটি ধরে নিয়ে গেছে।

তবে, এভাবে কলেজ কতৃপক্ষ সাপুড়ে,বা সাপ ধরিয়েদের হাতে ময়াল সাপটিকে তুলে দিতে পারেন না। বন দপ্তর কে খবর দিয়ে বন কমীদের হাতে তুলে দিলে, তারা সাপটিকে ফের জঙ্গলে ফিরিয়ে দিতে পারত। এমনিতেই বন্য প্রাণ সংরক্ষণ আইনে ময়াল সাপ বাড়ীতে পোষা,বা তা নিয়ে খেলা দেখান বেআইনি।

তাই, কলেজ কতৃপক্ষের তরফে বন দপ্তরের হাতে সাপটিকে তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করা উচিত ছিল বলে, জেলার বন্য প্রাণ প্রেমীদের দাবী।[playlist type="video" ids="789"]

Next Story